How To Earn Money Online Very Easily (Unique Way)

“To earn money online” sounds kinda creepy to someone. অনলাইনে ইনকাম করতে কার না মনে চাই বলুন! এমন অনেক ব্যক্তিকে বলতে শোনা যায়, “ভাই অনলাইনে কত দিনের ভিতরে ইনকাম করা যায়?” অথবা, “অনলাইনের কোন কাজে সবচেয়ে টাকা বেশী ইনকাম করা যায়?”

So, How do I actually make money online

খুব অকপটে প্রশ্ন গুলো করা যায়। উত্তরটা শোনার পর অনেকে আমার সাথে কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছে। আমার উত্তরগুলো শুনার পর তারা আমাকে ভাবে আমি চাই না তারা অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করুক। আসলে বিষয়টা তা নয়।

অনলাইন বা Freelance এর মাঠটা অনেক বড়। এত বড় মাঠ আপনি দৌড়ে কখনই শেষ করতে পারবেন না। একটা কথা মনে রাখতে হবে, অনলাইনের কাজগুলো একটা অন্যটির সাথে জড়িত। একটা কাজ করতে গেলে আরও অনেক সুক্ষ বিষয় আপনাকে জানতে হবে।

বিষয়টা আপনাকে পরিষ্কার করে বুঝিয়ে দিচ্ছি। ধরুন, আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে অনলাইন থেকে ইনকাম করতে চান। আপনি ভালভাবে কোর্স সম্পন্ন করলেন। এবং ভাবলেন এবার ইনকাম শুরু হয়ে যাবে। তাহলে ভুল ভাবছেন।

আপনাকে এখন একটি মার্কেট প্লেসে ঢুকতে হবে। সেখানে একটি সুন্দর প্রোফাইল কম্পলিট করতে হবে। এখন এসব আপনি পারেন। কিন্তু কোন ধরনের প্রোফাইল এবং পোর্টফোলিও আপনার বাইয়ারকে আকর্ষিত করবে তা আপনি জানেন না। তাহলে তো হবে না।

এখন সুন্দর একটা প্রোফাইলের জন্য আপনাকে SEO শিখতে হবে। নাও ঠেলা। করব গ্রাফিক্স ডিজাইন আবার SEO আসল কোথা থেকে? এমন প্রশ্ন আসাটাই স্বাভাবিক।

কিন্তু এটাই সত্য। কারণ, আপনি যদি SEO না জানেন তবে আপনা প্রোফাইল GOOGLE search এ আসবে না। আবার social media marketing করার জন্যেও আপনাকে search engine optimization (SEO) জাসতে হবে।

Read More: Skills you must have for a job Beside Academic Courses

আচ্ছা, এসব কোন কিছুই করা লাগবে না যদি আপনার নিজস্ব একটা ওয়েবসাইট থাকে। আপনার ওয়েব সাইট promote করবেন কিভাবে সেখানেও SEO লাগবে।

মোটকথা, একটা বিষয় জেনে অনলাইনে ইনকাম করা সম্ভব না। তাই আপনাকে অনেকগুলো বিষয়ের ধারনা থাকতে হবে।

এখন কথা হলো, আসলেই কি অনলাইন থেকে ইনকাম করা যায়? Is it really possible to earn money online? Can I earn money online from home?

উত্তর টি হল, হ্যা। সম্ভব। তবে আপনি যদি ভাবেন কোন একটি IT Firm থেকে ৬ মাসের একটি কোর্স করেই লাখ লাখ টাকা ইনকাম শুরু করবেন তাহলে চরম আকারে ভুলের মধ্যে আছেন।

আমি কিভাবে অনলাইনে সফল হলাম। How I became successful to earn money online and how I became a successful freelancer. গল্পটি একবার পড়লে আপনি সব বুঝতে পরবেন আপনার কি কি করা লাগবে।

২০১৩ সাল। সদ্য HSC তে A+  প্রাপ্ত ছাত্র। (হা হা হা) এক পরিচিত বন্ধু শুনলাম অনলাইনে কাজ করে টাকা ইনকাম করে। প্রথমে অতটা গুরুত্ব দেইনি। পরে যখন জানতে পারলাম যে অনলাইনে অনেক টাকা ইনকাম করা যায় তখন ঐ বন্ধুর সাথে দেখা করি। বলা বাহুল্য। আমি তখনো গ্রামে।

বন্ধুকে জিগেস করলাম, দোস্ত অনলাইন থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় রে? আর তুই কি কাজ করিস। প্রশ্নটা শুনে কেমন যেন একটা ভাব নিল। কিন্তু আমাকে বুঝতে দিতে চাইছে না যে ওর আমাকে এসব বলার কোন আগ্রহ নেই।

আমার পিড়াপীড়িতে শেষমেষ এক বাক্যে একটা উত্তর দিল, “গুগল থেকে এসব শেখা যায়!! “

তখন আমার কাছে শুধু একটা Nokia 2700 classic মোবাইল। কোন কম্পিউটার নেই। তবে ক্লাস ৬ থেকে কম্পিউটারের সাথে পরিচিতি আছে। ২০০৬ সালে যে স্কুলে ক্লাস সিক্সে ভর্তি হয়েছিলাম ঐ স্কুলে কম্পিউটার রুম ছিল।

যাই হোক, বাটন মোবাইলে গুগলে ঘাটাঘাটি করা শুরু করলাম। তখন ইউটিউব দেখার সুযোগ ছিল না আমার। তাই শুধু ব্লগ পড়তাম। এখানে একটা বিষয় আমার খুব কাজে লেগেছে। সেটা হল আমি ছোট থেকেই ইংরেজীতে ভাল। ইভেন, ইংলিশে অনার্স শেষ করেছি। আলহামদুলিল্লাহ।

Read More: মোবাইল দিয়ে কম্পিউটারের মত গতি বাড়াবেন যে সহজ পদ্ধতিতে

ইংরেজী বোঝার সুবিদার্থে ব্লগ পড়তে পড়তে oDesk আর Elance পেলাম। দুই ওয়েব সাইটে প্রোফাইল করলাম। কম্পিউটারের প্রয়োজন বোধ করায় বাড়িতে বুঝিয়ে বুঝিয়ে অনলাইন ইনকামের লোভ দেখিয়ে একটা কমাপিউটার কিনলাম।

শুরু হয়ে গেল সংগ্রাম। ইতিমধ্যে ৭ মাস চলে গেছে। একবার ভাবলাম Grphics Design করব। শিখলাম Photoshop. Laptop কেনার পর YouTube দেখে শেখা শুরু করলাম। শিখেছিলাম অনেক কিছুও। ভাল লগছিল না। ইংলিশে ভাল ছিলাম তাই ভাবলাম Article Writing করি। ও মা, এ তো দেখি আরও কঠিন।

ক্লায়েন্ট একটা sentence দেয়, তার উপর ভিত্তি করে ১০০০ word এর একটি article লিখতে হবে তাও আবার SEO friendly. এই মেরেছে SEO আবার কি জিনিস। শুরু হল সংগ্রাম। SEO এর গোষ্ঠি উদ্ধার করা শুরু করলাম। এসবে আরও ৭ মাস শেষ।

এখন আমি শহরের একটি হোস্টেলে উঠেছি ভার্সিটির জন্য। রুমমেট অন্ধকার রুমে ঘুমাত। আর আমি রাতে Laptop এর তিখনো আলোয় চোখ লাল করে কাজ শুরু করি।

Laptop চুরি হওয়ার ভয়ে বাড়ি রেখে এসেছিলাম। সম্বল এখন নোকিয়া বাটন মোবাইল। HTML আর seo শিখে বাটন মোবাইলেই simple একটা ওয়েবসাইট বানালাম wapka.mobi তে। সেখানে আমি photoshop এর history লিখতাম।

যেহেতু laptop বাড়ি রেখে এসেছি তাই মোবাইলে কিভাবে ইনকাম করা যায় তাই ভাবা শুরু করলাম। পরিচিত হলাম microworkers website এর সাথে। সেখানে sign up টাইপের সহজ সহজ কাজ দিত খুব কম পেমেন্টে।

এরপর আমি কামলা খাটা বাদ দিয়ে নিজের ব্লগ এবং ইউটিউব চ্যানেল ওপেন করি। সুতরাং, নিজের গতিতে কাজ করুন। সফলতা আসবেই!!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.